Home Politics পশ্চিমবঙ্গে ৭ আসনে ভোট, বিজেপির ওপর তৃণমূলের হামলা

পশ্চিমবঙ্গে ৭ আসনে ভোট, বিজেপির ওপর তৃণমূলের হামলা

ভারতের  লোকসভা নির্বাচনে পঞ্চম দফার ভোট গ্রহণ হচ্ছে। আজ সোমবার সকাল সাতটা থেকে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে এই ভোট গ্রহণ চলছে। এবার পশ্চিমবঙ্গের সাতটি আসনে ভোট হচ্ছে। এগুলো হলো হুগলি, আরামবাগ, শ্রীরামপুর, বনগাঁ, বারাকপুর, হাওড়া ও উলবেড়িয়া। এই সাত আসনে ৮৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

Web content writing training Online

এখন পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটি জায়গায় হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে। বারাকপুরের কাসেম বাজারে তৃণমূল–সমর্থকেরা বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয় ভেঙে দিয়েছেন। বিজেপির কর্মীদের মারধর করা হয়েছে—এমন অভিযোগও পাওয়া গেছে। সকাল থেকে তৃণমূলের কর্মীরা বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে হুমকি দিচ্ছেন। বিজেপিকে ভোট দিলে বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়া হবে, গ্রামছাড়া করা হবে—এমন হুমকি দিচ্ছেন তাঁরা। বহু নারী ভোটার অভিযোগ করেছেন যে তাঁদের ভোট দিতে দেওয়া হয়নি। এ ছাড়া এক নারী অভিযোগ করেছেন, তাঁর ছেলেকে অপহরণ করেছেন তৃণমূলের সমর্থকেরা। বারাকপুরের মোহনপুরে বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংয়ের ওপর হামলা করেছে তৃণমূল। এই হামলায় আহত হয়েছেন অর্জুন সিং। পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি হয়েছে বিজেপি নেতা ও সমর্থকদের। অর্জুন সিং অভিযোগ করেছেন, বাইর থেকে তৃণমূল গুন্ডা এনে হামলা চালিয়েছে তাঁর ওপর।

নৈহাটির পাল্লাদায় সিপিএমের ছয়জন এজেন্টকে ভোটকেন্দ্রে ঢুকতে দেয়নি তৃণমূল। টিটাগড়ে হুমকি দেওয়া হয়েছে বিজেপির কাউন্সিলরকে।

উলবেড়িয়ার উদয়নারায়ণপুরে বিজেপির সমর্থক উত্তম মণ্ডলের বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। পোড়ানো হয়েছে বিজেপির পতাকা। সংঘর্ষ হয়েছে বিজেপি-তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে। অভিযোগ উঠেছে, উত্তম মণ্ডলকে বিজেপি এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ করেছিল। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তৃণমূলের সমর্থকেরা হামলা চালান। হালিশহরে তৃণমূলের ওপর হামলা করেছে বিজেপি। দত্তপুকুরের আমডাঙ্গায় সিপিএমের সমর্থকদের ভোট দিতে বাধা দেওয়া হয়েছে।

যদিও আজকের নির্বাচনকে অবাধ এবং নিরপেক্ষ করতে নির্বাচন কমিশন সব বুথেই কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী নিয়োগ করেছে। এই সাত আসনে রয়েছে ১৩ হাজার ২৯০টি বুথ। নিয়োগ করা হয়েছে ৫৫৮ কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী।

আজকের নির্বাচনে ভাগ্য পরীক্ষা হবে অভিনেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়, অভিনেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়, সাবেক মন্ত্রী দীনেশ ত্রিবেদি, প্রখ্যাত ফুটবলার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, সাংবাদিক রন্তিদেব সেনগুপ্ত ও মতুয়া সম্প্রদায়ের গুরুমা বীণাপাণি দেবীর পুত্রবধূ মমতাবালা ঠাকুরের।

আজকের নির্বাচনে বনগাঁ আসনের উল্লেখযোগ্য প্রার্থী হলেন  মতুয়া সম্প্রদায়ের গুরুমা প্রয়াত বীণাপাণি দেবীর পুত্রবধূ মমতাবালা ঠাকুর, বিজেপির প্রার্থী বড়মার নাতি শান্তনু ঠাকুর, বামফ্রন্টের অলকেশ ঘোষ ও কংগ্রেসের সৌরভ প্রসাদ।

বারাকপুরে তৃণমূলের প্রার্থী সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দীনেশ ত্রিবেদি, বিজেপির প্রার্থী সদ্য তৃণমূল থেকে যোগ দেওয়া অর্জুন সিং, বামফ্রন্টের গার্গী চট্টোপাধ্যায় এবং কংগ্রেসের প্রার্থী মহম্মদ আলম।

আরামবাগে তৃণমূলের প্রার্থী অপরূপা পোদ্দার, বিজেপির প্রার্থী তপন রায়, বামফ্রন্টের প্রার্থী শক্তিমোহন মালিক এবং কংগ্রেসের জ্যোতি দাস।

হুগলিতে তৃণমূলের প্রার্থী রত্না দে নাগ, বিজেপির প্রার্থী অভিনেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়, বামফ্রন্টের প্রদীপ সাহা এবং কংগ্রেসের প্রতুল সাহা।

শ্রীরামপুরে তৃণমূলের প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, বিজেপির প্রার্থী দেবজিৎ সরকার, বামফ্রন্টের তীর্থঙ্কর রায় এবং কংগ্রেসের প্রার্থী দেবব্রত বিশ্বাস।

হাওড়ায় তৃণমূলের প্রার্থী সাবেক প্রখ্যাত ফুটবলার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, বিজেপির প্রার্থী সাংবাদিক রন্তিদেব সেনগুপ্ত, বামফ্রন্টের সুমিত্র অধিকারী এবং কংগ্রেসের শুভ্রা ঘোষ।

উলবেড়িয়া আসনে তৃণমূলের সাজদা আহমেদ, বিজেপির অভিনেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়, বামফ্রন্টের মাকসুদা খাতুন এবং কংগ্রেসের প্রার্থী সোমা রাণীশ্রী রায়।

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

ভোটের মুখে বড়সড় ঝুঁকি; দলের ১৫ নেতাকে তাড়ালেন নীতীশ, তালিকায় প্রাক্তন মন্ত্রী-বিধায়ক

বিহার বিধানসভা নির্বাচনের আর কয়েকদিনই বাকী। একেবারে ভোটের মুখে এসে বড়সড় ঝুঁকি নিলেন বিহ…