Home বিনোদন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল, ‌তবে মাঝেমধ্যে জ্বর আসছে
বিনোদন - October 12, 2020

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল, ‌তবে মাঝেমধ্যে জ্বর আসছে

নিজেস্ব সংবাদদাতা

করোনা সংক্রমিত হয়ে মঙ্গলবার থেকে বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধিন ৮৫ বছর বয়সি প্রবীণ অভিনেতা।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অবস্থা স্থিতিশীল। তবে মাঝে মধ্যেই জ্বর আসছে তাঁর। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা সামান্য বেড়েছে সৌমিত্রর। রবিবার আরও ১ ইউনিট প্লাজমা দেওয়া হয়েছে। তবে তাঁর শারীরিক অবস্থার দিকে বিশেষ ভাবে খেয়াল রাখা হয়েছে। ITU-তে পর্যবেক্ষণে ১৬ সদস্যের মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে।

Web content writing training Online

 

 

করোনা সংক্রমিত হয়ে মঙ্গলবার থেকে বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধিন ৮৫ বছর বয়সি প্রবীণ অভিনেতা। বয়সের পাশাপাশি ক্যান্সার-প্রেশার-সুগার-সিওপিডি-র মতো একাধিক কো-মর্বিডিটির কারণে তাঁকে নিয়ে চিন্তায় ছিলেন চিকিৎসকরাও। কিন্তু শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত সৌমিত্রর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীলই ছিল! বৃহস্পতিবার হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়, ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন তিনি। বুধবার সারা দিনে একবারও জ্বর আসেনি, বৃহস্পতিবারও শারীরিক অবস্থা ঠিকই ছিল।

 

 

শনিবার আচমকাই শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। তার আগে গত দু’দিন তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল ছিল, খাওয়া-দাওয়া, ঘুম… সবকিছুই ছিল স্বাভাবিক। নতুন করে জ্বরও আসেনি। কাশি, গলাব্যথার মতো কোনও উপসর্গও ছিল না। শুক্রবার দুপুরের পর থেকেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। সারা শরীর জুড়ে তীব্র অস্বস্তি অনুভব করতে থাকেন সৌমিত্র। তাঁর চিকিৎসার জন্য গঠিত বিশেষ মেডিক্যাল বোর্ড আবারও পরীক্ষা করে অভিনেতাকে। দেখা যায় তাঁর রক্তচাপ অস্বাভাবিকভাবে ওঠানামা করছে, রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা কিছুটা কমে যাওয়ায় তাঁকে অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়। কেবিন থেকে স্থানান্তরিত করা হয় আইটিইউতে । বেলভিউ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে কড়া পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। একই সঙ্গে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ভয়ের কোনও কারণ নেই। বয়সের কারণে এরকম সমস্যা মাঝে মধ্যে হতেই পারে।

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

৩৩তম প্রয়াণ দিবস, মৃত্যুবার্ষিকীতে ফিরে শোনা কিশোর কুমারের সেরা কিছু গান

বলাই হয় তাঁকে ভার্সাটাইল জিনিয়াস! কথাটা যদি শুধু গানের দিক থেকে ধরতে হয়, তা হলেও খেটে যায়।…