সানস্ক্রিন
Home বিউটি, রূপচর্চা ও ফ্যাশন রোদের থেকে বাঁচতে কোন সানস্ক্রিন বাছবেন?-জেনে নিন তার সমন্ধে!

রোদের থেকে বাঁচতে কোন সানস্ক্রিন বাছবেন?-জেনে নিন তার সমন্ধে!

ত্বককে ক্ষতিকারক রশ্মির হাত থেকে বাঁচাতে বেছে নিন সঠিক সানস্ক্রিন।এই গরমে নজর রাখুন ত্বকের দিকে।

যত গরম বাড়ছে তার সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বিপদ।গ্লোবাল ওয়ার্মিং এর জন্য এখন সূর্যের দুই ক্ষতিকারক রশ্মি সরাসরি প্রবেশ করছে পৃথিবীতে।আর এই ক্ষতিকারক রশ্মির জন্য সান বার্নের সাথে সাথে হতে পারে ভয়ানক ত্বকের ক্যান্সারও।সূর্যের এই দুই ক্ষতিকারক রশ্মি হল UVA এবং UVB ।এই দুই রশ্মি ত্বকের ক্যান্সারের সাথে সাথে ত্বকের বয়সও বাড়িয়ে দেয়।আর এই দুই ক্ষতিকারক রশ্মির থেকে বাঁচতে ত্বকের চাই সানস্ক্রিন।কিন্তু এই সানিস্ক্রিন বাজার থেকে কেনার সময় কয়েকটা জিনিস নজর করে কিনতে হবে।জেনে নিন সেই জিনিস গুলোর সমন্ধে এবং নিজের জন্য বাছুন যোগ্য সানস্ক্রিন ।

Web content writing training Online

সানস্ক্রিন বাছার উপায়ঃ

Source: Collected

১।এসপিএফঃ

এসপিএফ হল ইউভিবি রশ্মি আটকানোর মাপ এবং সানস্ক্রনের এটি একটি গুরুত্বপূর্ন বিষয়।সানস্ক্রিন কেনার সময় অবশ্যই এসপিএফ দেখে কিনতে হবে।সবসময় এমন সানস্ক্রিন কিনতে হবে যার এসপিএফ থাকবে ৩০ এর বেশি।যারা অফিসকর্মী বা যারা নিত্যদিন চড়া রোদে বাইরে কাজ করতে বেরোচ্ছেন তারা অবশ্যি ৫০ এর বেশি এসপিএফ যুক্ত ক্রিম ব্যবহার করবেন।তবে সবসময় এটা জেনে রাখবেন যতই এসপিএফ যুক্ত ক্রিম হোক না কেন তা পুরোপুরি ভাবে এই দুই রশ্মির হাত থেকে রক্ষা করতে পারে না।

২।ব্রড স্পেকট্রামঃ
যখনই আপনি দোকান থেকে আপনার পছন্দের সানস্ক্রিনটা কিনবেন তখন অবশ্যই দেখে নেবেন তাতে ‘ব্রড স্পেকট্রাম’ কথাটা লেখা আছে কি না।কোনো সানস্ক্রিনে যদি এই কথাটা লেখা থাকে তাহলে বুঝতে হবে সেই ক্রিমটি আপনাকে সূর্যের এই দুই ক্ষতিকারক রশ্মির থেকে বাঁচাতে পারবে।

৩। সানস্ক্রিন ব্যবহারের পরিমানঃ

সানস্ক্রিন কতটা ব্যবহার করতে হবে এই প্রশ্ন অনেকেরই থাকে।শরীরের সমস্ত বেরিয়ে থাকা অংশগুলিতেই সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত।এমনকি মাথার স্কাল্পেও লাগানো উচিত। যেখানে চুল বেশি সেখানে জেল সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন।

৪। কতবার করে লাগানো উচিতঃ

আপনি যতবার মুখ ধোবেন বা ঘামবেন ততবারই আপনার সানস্ক্রিন গলে মুছে যাবে।তাই যতবার আপনি মুখ ধোবেন বা মুখ মুছবেন ততবারই আপনাকে ক্রিম লাগাতে হবে।

৫।কেরকম সানস্ক্রিন কিনবেনঃ

সানস্ক্রিন বাছবেন আপনার ত্বক বুঝে।আপনার ত্বক যদি হয় তৈলাক্ত তবে সেই ত্বকের জন্য বাছুন জেল জাতীয় সানস্ক্রিন।আর আপনার ত্বক যদি হয় শুষ্ক তার জন্য বেছে নিন ক্রিম জাতীয় সানস্ক্রিন।আর আপনার ত্বক যদি এই দুইয়ের মধ্যে কোনোটাই না হয় তবে নিজের জন্য বেছে নিন লোশন জাতীয় সানস্ক্রিন।

৬। আরো কিছু নিয়মঃ

মুখের ত্বক হয় শরীরের ত্বকের থেকে ভিন্ন।তাই মুখের জন্য আলাদা এবং শরীরের জন্য আলাদা সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।মুখের ত্বক হয় পাতলা তাই শরীরের সানস্ক্রিনের থেকে হাল্কা মানের ক্রিম মুখে ব্যবহার করুন।এছাড়াও রোদে বেরোনোর ১৫-২০ মিনিট আগে মেখে নিন ক্রিমটি।

সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪ টের মধ্যে সবচেয়ে বেশী থাকে এই দুই ক্ষতিকারক রশ্মির প্রভাব।তাই এই সময় খুব কাজ না থাকলে বাইরে বেরোনো এড়িয়ে চলবেন। এছাড়াও বাইরে বেরোলে ছাতা, জলের বোতল, ছাড়া এবং সানস্ক্রিন নিতে কখোনোই ভুলবেন না। এই গরমে একটু সতর্ক হয়ে থাকুন এবং সুস্থ থাকুন।

 সম্পর্কিতঃভাগ্য পরিবর্তন হবে এই বাস্তুর টোটকা গুলো মেনে চললেই – দেখে নিন উপায়গুলো

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

এবার পূজোয় আপনার ঠোঁটও সেজে উঠুক নানান রঙে!

ঢাকে কাঠি পড়েছে, আর সেই ঢাকের আওয়াজ জানান দেয় বাঙালি দের শ্রেষ্ঠ পুজো দূর্গা পুজো প্রায় এস…