Home Treatment গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা হলে কী করবেন?জেনে নিন !

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা হলে কী করবেন?জেনে নিন !

গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দূর করার ঘরোয়া উপায় !

Image result for gastric problem
GOOGLE

আমাদের দেশে বেশিরভাগ মানুষ ই গ্যাসের সমস্যায় (অ্যাসিডিটি) ভুগে থাকেন। ফাস্ট ফুড, ব্যস্ত জীবনযাত্রার যুগে গ্যাস, পেটের অসুখ এখন ঘরোয়া রোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে। পেটে অতিরিক্ত পরিমাণে অ্যাসিড হবার কারণে পেটে ব্যথা, গ্যাস, বমিবমি ভাব, মুখে দুর্গন্ধের মতো সমস্যা দেখা দেয়। সাধারণত বেশি ঝাল ও তৈলাক্ত খাবার খাওয়া, অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, দুশ্চিন্তা, ব্যায়াম না করা ইত্যাদির কারণে পেটে গ্যাস তৈরি হয়।গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার কারণে অনেকেই অনেক খাবার এড়িয়ে চলেন। কিন্তু তারপরেও গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে বাঁচতে পারেন না । এছাড়াও গ্যাস্ট্রিকের ব্যাথার আরো কিছু কারণ হতে পারে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ, ফুড পয়জনিং, কিডনিতে পাথর, আলসার ইত্যাদি।

Web content writing training Online
Image result for gastric problem
GOOGLE

এই সমস্যা থেকে বাঁচতে হলে যা করনীয় :
• ঘুমাবেন না : খাবার খাওয়ার সাথে সাথে ঘুমিয়ে পড়বেন না। কারণ খাবার হজম না হলে পেটে গ্যাস তৈরি করে।
• ডাল জাতীয় খাবার খাবেন না : গ্যাস হলে যেকোনো ধরণের ডাল যেমন, মসুরের ডাল, বুট, ছোলা, বীণ, সয়াবিন ইত্যাদি খাবেন না। কারণ এগুলোতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, সুগার ও ফাইবার যা সহজে হজম হতে চায় না এবং গ্যাসের সমস্যা সৃষ্টি করে।
• তেল জাতীয় খাবার : ডুবো তেলে ভাজা যেকোনো ধরণের তৈলাক্ত খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।
• শাক-সবজি : যে সবজিগুলো সহজে হজম হয় না যেমন, ব্রকলি, ফুলকপি, বাঁধাকপি, পালং শাকে থাকা রাফিনোজ নামক উপাদান পেটে গ্যাস তৈরি করে।
গ্যাস নিরাময়ের উপায় :

Image result for CURD
GOOGLE

• ব্যায়াম বা হাঁটাহাঁটি করুন : নিয়মিত ব্যায়াম কিংবা সময় নিয়ে হাঁটাহাঁটির অভ্যাস করুন। এতে পেটের মধ্যে গ্যাস জমতে পারবে না।
• দই বা মাঠা : দইয়ের মধ্যে রয়েছে প্রোবায়টিক উপাদান যা হজম শক্তি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে গ্যাসের ব্যথা কমিয়ে আনে। এছাড়া মাঠাতে থাকা ল্যাক্টিক অ্যাসিড
গ্যাসকে স্বাভাবিক করে।তাই প্রতিদিন নিয়মিত মাঠা বা দই খেলে ভালো উপকার পাওয়া যায়।

Image result for gastric problem
GOOGLE

• শসা : পেট ঠাণ্ডা রাখতে শসার তুলনা হয় না। এতে রয়েছে ফ্লেভানয়েড ও অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা পেটে গ্যাসের চাপ কমিয়ে আনে এবং বুকের জ্বালা দূর করে।
• আদা : আদা সবচাইতে কার্যকরী অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদানসমৃদ্ধ খাবার যা গ্যাসের সমস্যা দূর করে। আদা চুষে খেলে কিংবা চা বানিয়ে খেলে এই কষ্ট থেকে রেহাই পাওয়া যায়।
• লবঙ্গ : লবঙ্গ তাৎক্ষণিক গ্যাসের ব্যথা কমিয়ে আনে। ২/৩ টি লবঙ্গ মুখে নিয়ে চুষলে কিংবা সমপরিমাণ এলাচ ও লবঙ্গ গুঁড়া খেলে অ্যাসিডিটির জ্বালা এবং মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়।

Related image
GOOGLE

• ঠাণ্ডা দুধ : পাকস্থলির গ্যাসট্রিক অ্যাসিড
কে নিয়ন্ত্রণ করে অ্যাসিডিটি থেকে মুক্তি দেয় ঠাণ্ডা দুধ। এক গ্লাস ঠাণ্ডা দুধ পান করলে অ্যাসিডিটি দূরে থাকে।
• দারুচিনি : হজমের জন্য খুবই ভালো। এক গ্লাস জলে আধ চামচ দারুচিনির গুঁড়ো দিয়ে ফুটিয়ে দিনে ২ থেকে ৩ বার খেলে গ্যাস দূরে থাকবে।
• জিরা : জিরা পেটের গ্যাস, বমি, পায়খানা, রক্তবিকার প্রভৃতিতে অত্যন্ত ফলপ্রদ। জ্বর হলে ৫০ গ্রাম জিরা আখের গুড়ের মধ্যে ভালো করে মিশিয়ে ১০ গ্রাম করে পাঁচটি বড়ি তৈরি করতে হবে। দিনে তিনবার এর একটি করে বড়ি খেলে ঘাম দিয়ে জ্বর সেরে যাবে।

• এলাচ : লবঙ্গের মতো এলাচ গুঁড়ো খেলে অম্বল দূরে থাকে।
পুদিনা পাতা মিশ্রিত জল: এক কাপ জলে ৫টা পুদিনা পাতা দিয়ে ফুটিয়ে খান। পেট ফাঁপা, বমিভাব দূরে রাখতে এর বিকল্প নেই।
• মৌরির জল : মৌরি ভিজিয়ে সেই জল খেলে গ্যাস থাকে না।

Related image
GOOGLE

এ ছাড়াও খাবারে সরষে যোগ করুন : সরষে গ্যাস সারাতে করতে সাহায্য করে। বিভিন্ন খাবারের সাথে সরষে যোগ করা হয় যাতে সেইসব খাবার পেটে গ্যাস সৃষ্টি করতে না পারে। নজর রাখতে হবে নিজের খাওয়া-দাওয়ার প্রতি। জেনে নিতে হবে কোনটি খাওয়া উচিত হবে কোনটি হবে না।অতিহার বা অনাহার পরিহার করুন ।বাসি, পঁচা খাবার খাবেন না । সকালে খালি পেটে কমপক্ষ্য আধালিটার এবং প্রতিবার খাওয়ার ৩০ মিনিট পর কমপক্ষে আধালিটার জল পান করুন , নিয়মমত সঠিক সময়ে খাবার খাবেন | দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকুন। মাদক দ্রব্য ও ধুমপান পরিহার করুন।পরিমিত ঘুমাতে হবে।পেট খালি না রাখতে অল্প অল্প খাবার কয়েকবার খান ।

Image result for PROPER EXERCISE FOR GASTRIC PATIENT
GOOGLE

আঁশযুক্ত খাবার খাওয়ার অভ্যাস করুন , চা পান কম করবেন ,খাওয়ার পর একটু হাঁটাহাটি করবেন, ফাস্ট ফুড এড়িয়ে চলুন,খাবার ভালভাবে চিবিয়ে খান , সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে হাফ লিটার জল পান করুন, বা ইসভগুলের সরবত (এসভ্গুল + পানি+ চিনি/মিশরী) খেলে পেট ভালো থাকে। তৈলাক্ত ও বেশি মসলাযুক্ত খাবার পরিহার করুন ,কাঁচা পেপের তরকারী পেট ভালো রাখতে সাহায্য করে, বেল বা পাকা পেপের শরবত গ্যাস্ট্রিক এর প্রবলেম দূর করতে সাহায্য করে |
এ নিয়মগুলো মেনে চললে গ্যাস্ট্রিক আপনার বশে আসতে বাধ্য। তারপরও সমস্যা থাকলে আপনার ঔষধ খাবার দরকার হতে পারে তাই এক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

Image result for PROPER EXERCISE FOR GASTRIC PATIENT
GOOGLE

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

খুব বেশি কফি খান? খুব সাবধান, দেখা দিতে পারে এই সমস্যাগুলি

এক-আধ কাপ খেলে কোনও সমস্যা নেই, কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত কফি পান করলে কী কী হতে পারে সেটা একবা…