Home স্বাস্থ্য, শরীরচর্চা ও সুরক্ষা গরমকালে সুস্থ থাকতে আপনার খাদ্যাভাসে অবশ্যই যোগ করুন এই খাদ্যগুলি!

গরমকালে সুস্থ থাকতে আপনার খাদ্যাভাসে অবশ্যই যোগ করুন এই খাদ্যগুলি!

গরমকাল সারা বছরের সবচেয়ে অস্বস্তিকর একটি সময়। এই সময় লোকজন সহজেই অসুস্থ হয়ে পড়ে। এই বছরের এই সময়ে খুব নজর রাখতে হয় নিজের খাদ্যাভাসের দিকে।

Web content writing training Online

কিছু স্বাস্থ্যকর পরিবর্তন আনতে হয় নিজের খাদ্যাভাসে। বেশি করে শাকসবজি এবং ফলমূল এছাড়া প্রচুর পরিমাণে জল খেতে হয় সুস্থ থাকতে। এমন এমন খাবার নিজের শরীরের জন্য বাঁচতে হয় যাতে সেটি শরীরকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। কিছু বিশেষ শাক সবজি এবং ফল আছে যা গরম কালে অবশ্যই আপনার খাদ্যাভাস এর মধ্যে যোগ করা উচিত। দেখে নিন শরীর ঠান্ডা করার রাখার জন্য কোন কোন শাক সবজি বা ফল প্রয়োজনীয়।

১) শশাঃ

গ্রীষ্মকালের সবজি দের মধ্যে যেটি সবচেয়ে বেশি বিখ্যাত সেটি হলো শশা।শশা গ্রীষ্মকালে শরীরকে ঠান্ডা রাখতে খুবই সাহায্য করে। এছাড়াও শশা শরীরের কিছুটা জলের অভাব মেটায়। কাঁচা কাঁচা ও এই সবজিটি খাওয়া যায় আবার চাইলে এই সবজিটি কে কোন তরকারির মধ্যে রান্না করেও খাওয়া যায়। শশার মধ্যে জলের পরিমাণ আছে অনেক যেটি এই গ্রীষ্মকালে শরীরের জলের অভাব মেটায়। এছাড়াও এ টির মধ্যে অনেক পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি আছে। এই উপাদান গুলির জলের অনুপস্থিতে শরীরকে জলজ রাখতে সাহায্য করে।

২) টম্যাটোঃ 

টমেটো খাদ্যের মধ্যে সবচেয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। প্রায় সব রান্নাতেই এর উপস্থিতি বর্তমান। আর গ্রীষ্মকালে বিশেষ করে এটি খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে ভীষণভাবে স্বাস্থ্যকর। টমেটো যদি কাঁচা খাওয়া যায় এর মধ্যে থাকে 94 থেকে 95 শতাংশ জল। যা আমাদের শরীরকে জলযোজক রাখতে সাহায্য করে। এছাড়াও টমেটোতে আছে অনেক পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এছাড়াও আছে ভিটামিন সি পটাশিয়াম এবং ক্যালসিয়াম যা গরমে শরীরের পক্ষে খুবই প্রয়োজনীয়।

৩) লাউঃ 

লাউ বাঙ্গালীদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি সবজি। এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে থাকে জলের পরিমাণ। এই সবজি ও শরীরে জলের অভাব কে মেটাতে সাহায্য করে। এছাড়াও লাভের মধ্যে অনেক পরিমাণে ক্যালসিয়াম আছে যেটি কিনা আমাদের হাড়ের জন্য ভীষণভাবে জরুরী। এছাড়াও পেট খারাপ, উচ্চ কলেস্টেরল কমাতে এবং মধুমেহ রোগ কমাতেও এটি সাহায্য করে।

৪) বেগুনঃ 

অনেকে হয়তো জানেন না বেগুন ও গ্রীষ্মকালের শরীরের পক্ষে খুব জরুরি একটি সবজি। এটি সবজি হিসেবে সুস্বাদু তো অবশ্যই এছাড়া শরীরের অনেক উপকারেও এটি লাগে। বেগুনে অনেক পরিমাণে ফাইবার আছে যেটা কিনা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান।
এছাড়াও বেগুনে আছে ভিটামিন পটাশিয়াম এর মতো জরুরি উপাদান গুলি যেগুলো শরীরকে স্বাস্থ্যকর রাখতে সাহায্য করে।

৫) কুমড়োঃ

কুমড়োও গ্রীষ্মকালের সবজি দের মধ্যে একটি অন্যতম সবজি। সকালে খাদ্যাভাসের মধ্যে এটি যোগ করা খুবই দরকার। শরীরের স্বাস্থ্য সুস্থ রাখতে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কুমড়ো তে আছে অনেক পরিমাণে ভিটামিন এ যেটা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে এবং কোন রোগকে শরীরে ঢুকতে দেয় না। এছাড়াও কম্রতে আছে অনেক পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিটা ক্যারোটিন যেটা হৃদরোগ কমাতেও সাহায্য করে। এছাড়াও শরীরের তাপমাত্রা ঠান্ডা রাখতেও কুমড়ো সাহায্য করে।

৬) উচ্ছেঃ 

উচ্ছে কারোর পছন্দের খাবার না হলেও শরীরকে সুস্থ রাখতে তার জুড়ি নেই। এর নানান উপকারিতা রয়েছে। হৃদ রোগ ঠিক করতে এছাড়াও পেট খারাপের সময় পেট ঠিক করতে উচ্ছে একটি বড় ভূমিকা পালন করে। এরশাদ তেঁতো হলেও এর মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণে নিউট্রিয়েন্টস যেমন ক্যালসিয়াম, ভিটামিন সি, আয়রন এবং পটাশিয়াম। এই উপাদান গুলি আমাদের শরীরের মধুমেহ রোগ কে কমাতে সাহায্য করে এছাড়াও গ্রীষ্মকালে আমাদের স্বাস্থ্যকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

৭) সবুজ শাক-সবজিঃ 

গ্রীষ্মকালে বেশি করে সবুজ শাকসবজি খাওয়া খুবই প্রয়োজনীয়। এটি শরীরের অনেক উপাদানের ঘাটতি পূরণ করে। সবুজ শাক সবজির মধ্যে অনেক মিল থাকে এছাড়াও থাকে আয়রন এবং ক্যালসিয়াম। এই উপাদান গুলি শরীরের হাড় শক্ত করতে সাহায্য করে এছাড়াও হার্ট ভালো রাখতেও সাহায্য করে। এছাড়াও গ্রীষ্মকালে হালকা খাবার খাওয়া শ্রেয় তাই জন্য এই সবুজ শাকসবজি সবচেয়ে ভালো শরীরের জন্য।

 

 

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

খুব বেশি কফি খান? খুব সাবধান, দেখা দিতে পারে এই সমস্যাগুলি

এক-আধ কাপ খেলে কোনও সমস্যা নেই, কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত কফি পান করলে কী কী হতে পারে সেটা একবা…