Home লাইফস্টাইল প্লাস্টিকের পাত্র কতদিন অবদি ব্যবহার করা নিরাপদ তা জানেন কি? জেনে নিন সেই বিষয়ে!

প্লাস্টিকের পাত্র কতদিন অবদি ব্যবহার করা নিরাপদ তা জানেন কি? জেনে নিন সেই বিষয়ে!

কোন প্লাস্টিক কতদিন ব্যবহার করা উচিত তা লেখা থাকে প্লাস্টিকের গায়েই।শুধু জেনে নিতে হবে সেইগুলি দেখে বোঝার উপায়!

প্লাস্টিকের পাত্র আমারা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রায়ই ব্যাবহার করে থাকি।জলের পাত্র হিসাবে কিংবা খাবার নেওয়ার টিফিন ক্যারিয়ার হিসাবে বা আরও অন্যান্য রূপে আমরা প্লাস্টিককে ব্যবহার করে থাকি।কিন্তু সেই পাত্রও অনির্দিষ্টকালের জন্য ব্যবহার করা যায় না।সেই প্লাস্টিকগুলো ব্যবহার করারও বিশেষ সময়সীমা থাকে।এই বিষয়টি অনেকেরই অজানা।কোনো প্লাস্টিকের পাত্র কতদিন ব্যবহার করা যাবে তা লেখা থাকে ওই নির্দিষ্ট পাত্রটির গায়েই।লক্ষ্য করলে দেখা যায় প্লাস্টিকের পাত্রগুলির নীচে এক ত্রিভুজ আকৃতির ছাঁচ থাকে।আর সেই ছাঁচের মধ্যে কিছু সংখ্যাও লেখা থাকে।সেই সংখ্যা দেখেই বোঝা যায় ঐ পাত্রটি কতদিন ব্যবহার করা যেতে পারে।এবার জানতে হবে এই সংখ্যা গুলির অর্থ এবং কিভাবে বোঝা যাবে এই সংখ্যা দেখে যে ওই প্লাস্টিকের পাত্রটি ঠিক কতদিন ব্যবহার করা উচিত।

Web content writing training Online

দেখে নিন সংখ্যার অর্থগুলিঃ

১) প্লাস্টিকের পাত্রটির গায়ে যদি ওই ত্রিভুজের মধ্যে ১ লেখা থাকে তাহলে বুঝতে হবে পাত্রটি পলিথাইলিন টেরেপথ্যালেট জাতীয় উপাদান দিয়ে তৈরী।যার মানে হল এই পাত্রগুলিকে মাত্র একবারই ব্যবহার করা যায়।একবারের বেশী এই পাত্রগুলি ব্যবহার করা বিপদজ্জনক।

২) পাত্রের গায়ে ছাঁচে লেখা ওই ত্রিভুজের মধ্যে যদি ২ লেখা থাকে তবে সেটি দেখে বুঝতে হবে যে পাত্রটি ঘন, অস্বচ্ছ পলিথিন বা এইচডিপিই জাতীয় পলিথিন দিয়ে তৈরি।সাধারণত টয়লেট ক্লিনার, শ্যাম্পুর কন্টেনার বা ডিটারজেন্টের পাত্র গুলি এই প্লাস্টিক ব্যবহার করে তৈরী করা হয়।এগুলিতে কখনই খাবার জিনিস কিংবা পানীয় জল রাখা উচিত নয়।

৩) পাত্রের ওই ছাঁচে যদি ৩ লেখা থাকে তবে বুঝতে হবে পাত্রটি পলিভিনিল ক্লোরাইড বা পিভিসি নামক উপাদান দিয়ে তৈরি।রেস্টুরেন্টের খাবার ডেলিভারির জন্য বা রান্নার তেল রাখার পাত্র হিসেবে এই পলিথিনের বানানো পাত্র ব্যবহার করা হয়।এইগুলি কখনই একবারের বেশী ব্যবহার করা যায় না।বার বার এই পলিথিন ব্যবহার করা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর।

পরবর্তীতে পড়ুনঃ১০টি হলুদের উপকারিতা জেনে নিন!

৪) পাত্রের গায়ে যদি ৪ লেখা থাকে তবে বুঝতে হবে সেই পাত্রের প্লাস্টিক এলডিপিই জাতীয় পলিথিন দিয়ে তৈরি।এই জাতীয় পাত্র গুলি একাধিকবার জল রাখার কাজে কিংবা খাবার রাখার কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে।তবে এই পাত্রে বেশি দিন রেখে দেওয়া খাবার বা জল একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়।

৫) ৫ নম্বর লেখা পাত্রগুলি ব্যবহার করা একেবারেই নিরাপদ।সাধারনত এই পলিথিনের পাত্রগুলিকে স্যস রাখার পাত্র বা প্যাকেজড জল রাখার পাত্র হিসাবে ব্যবহার করা হয়।

৬) যেইসব প্লাস্টিকের পাত্রর নীচে ৬ লেখা থাকে সেইসব পাত্রগুলি সাধারণত পলিস্টিরিন বা স্টাইরোফোম জাতীয় উপাদান দিয়ে তৈরি হয়।এই জাতীয় পাত্র বেশি ব্যবহার না করাই ভালো।আর কখনই এই জাতীয় পাত্রে খাবার গরম করবেন না।

৭) শেষ যে সংখ্যাটি নিয়ে আলোচনা করব সেই সংখ্যাটি হল ৭।কোনো পাত্রের ত্রিভূজের মধ্যে যদি ৭ নম্বরটি থাকে তাহলে বুঝতে হবে পাত্রটি ব্যবহার করা স্বাস্থ্যের পক্ষে একেবারেই ঠিক নয়।এই পাত্রগুলি কোনো কাজে না ব্যবহার করাই ভালো।এতে কোনো রকম খাবার বা পানীয় একেবারেই রাখা উচিত নয়।

 

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

খুব বেশি কফি খান? খুব সাবধান, দেখা দিতে পারে এই সমস্যাগুলি

এক-আধ কাপ খেলে কোনও সমস্যা নেই, কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত কফি পান করলে কী কী হতে পারে সেটা একবা…