হলুদের উপকারিতা
Home লাইফস্টাইল ১০টি হলুদের উপকারিতা জেনে নিন!

১০টি হলুদের উপকারিতা জেনে নিন!

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে হলুদের উপকারিতা অনেক আছে। রোজ রান্নার কাজে আমরা হলুদ ব্যবহার করে থাকি। হলুদ না দিলে রান্না অসম্পূর্ণ থেকে যায়। শুধু বাঙালি কেন গোটা ভারতবর্ষে হলুদ রান্নার কাজে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু রান্নার কাজ ছাড়াও হলুদের আছে আরো অনেক গুণাগুণ। হলুদের মধ্যে এমন অনেক উপাদান আছে যা শুধু সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেও নয় শরীর ঠিক রাখতেও সাহায্য করে।

Web content writing training Online

দেখে নিন হলুদের উপকার গুলোঃ

১) হলুদ ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমনের হাত থেকে বাঁচায়ঃ

হলুদে আছে কারকিউমিনের অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ও অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট উপাদান।আমরা রোজ যে খাবার খাই, তার মধ্যে অনেকসময়ই নানা জীবাণু থেকে যেতে পারে।এই উপাদানগুলি খাদ্যনালীকে সেই বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ থেকে  বাঁচায়।। খাবারে হলুদ গুঁড়ো ব্যবহার করলে বা রোজ কাঁচা হলুদ খেলে তা খাদ্যনালীকে ক্ষতিকারক জীবাণুর সংক্রমণ থেকে বাঁচায় ও খাদ্যনালীর প্রদাহের সম্ভাবনা কমায়।

২) হাড় ভেঙে গেলে জোড়া লাগাতে কাঁচা হলুদ সাহায্য করেঃ

বহু প্রাচীনকাল থেকেই কাঁচা হলুদকে হাড়ের নানারকম রোগের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।আগেকার দিকে হাত পা মচকে গেলে বা হাড় ভেঙে গেলে সেই জায়গায় হলুদের প্রলেপ লাগানো হত। কাঁচা হলুদ বেটে ভাঙ্গা হাড়ের জায়গায় লাগালে তা উপকার দেয়।ক্ষততে লাগানোর সাথে সাথে যদি দুধে হলুদ দিয়ে খাওয়া হয় তাহলেও উপকার পাওয়া যায়।হলুদে আছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা ব্যথা, প্রদাহকে কমায় এবং হাড়ের টিস্যুগুলিকে রক্ষা করে ও ভাঙ্গা হাড় জোড়া লাগতে সাহায্য করে।

৩) কাঁচা হলুদ মধুমেহ রোগ কমাতেও সাহায্য করেঃ 

হলুদ ও হলুদে থাকা কারকিউমিন অ্যান্টি-ডায়াবেটিক এজেন্ট হিসেবে কাজ করে ও রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া কাঁচা হলুদ ইনসুলিন হরমোনের ক্রিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে ও অগ্ন্যাশয়কে সুস্থ রাখে।

৪) ত্বকের তারুন্য বজায় রাখতেও কাঁচা হলুদ সাহায্য করেঃ 

কাঁচা হলুদ বহু প্রাচীনকাল থেকেই ত্বকের ঔজ্জ্বল্য রক্ষা করতে ও ত্বকের বয়স কমায়। তাই বিভিন্ন ক্রিমের প্রয়োজনীয় উপাদান হিসেবে হলুদ ব্যবহার করা হয়। ত্বকের বিভিন্ন দাগ, রিঙ্কল ও সান ট্যান থেকে ত্বক কে রক্ষা করার জন্য কাঁচা হলুদের পেস্ট ঘরেই তৈরি করে মুখে লাগানো যেতে পারে। হলুদে থাকা কারকিউমিনের অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট গুণ ত্বককে বয়সের ছাপ থেকে বাঁচায়।

৫) দাঁতের ক্ষয় রোধ করতেও কাঁচা হলুদের জুড়ি মেলা ভারঃ 

কাঁচা হলুদ দাঁতের ওপরে থাকা এনামেলের আস্তরণকে রক্ষা করে ও দাঁতের ক্ষয় থেকে দাঁতকে বাঁচায়। হলুদের অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল গুণাবলী থাকায় তা জীবাণুকে থেকেও দাঁতকে রক্ষা করে। তাই অনেকসময় বিভিন্ন টুথপেস্টে হলুদকে আবশ্যকীয় উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এছাড়া মাড়ি থেকে রক্ত পড়া কমাতে ও মুখের ভেতরে ক্ষত সারাতে কাঁচা হলুদ নিয়ম করে খাওয়া যেতে পারে।

৬) ওজন কমাতেও কাঁচা হলুদ ব্যবহার করা হয়ঃ 

কাঁচা হলুদের অ্যান্টি-ওবেসিটি প্রপার্টি থাকায় নিয়ম করে কাঁচা হলুদ খেলে তা শরীরে মেদ জমতে বাধা দেয় ও মেটাবলিজমের হার বাড়ায়।

আরও পড়ুনঃআমাদের দৈনন্দিন জীবনে ১০টি কালোজিরার উপকারিতা !

৭) সর্দি কাশি কমাতে কাঁচা হলুদ থাকে সবার আগেঃ 

হলুদে থাকা কারকিউমিন ইনফ্লুয়েঞ্জা, সর্দিকাশি কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া কাঁচা হলুদ আমাদের শরীরের ইমিউনিটি বা অনাক্রম্যতা বাড়ায় ও সর্দিকাশি থেকে আরাম দেয়। কাঁচা হলুদে থাকা ভিটামিন সি-ও সর্দিকাশি কমাতে সাহায্য করে।

৮) কাঁচা হলুদ অ্যানিমিয়া কমাতেও সাহায্য করেঃ 

কাঁচা হলুদের মধ্যে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট গুণ থাকায় তা অ্যানিমিয়ার হাত থেকে আমাদের বাঁচায়। মেয়েদের সাধারণত অ্যানিমিয়া হওয়ার প্রবণতা বেশি দেখা যায়, তাই তাদের পক্ষে কাঁচা হলুদ নিয়ম করে খাওয়া খুবই উপকারী। এছাড়া হলুদে থাকা কারকিউমিন লোহিত রক্তকণিকাকে রক্ষা করে। হলুদে প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকায় তা রক্তে আয়রনের ঘাটতিকেও মেটাতে সাহায্য করে।

৯) অ্যালজাইমার রোগের মোক্ষম দাওয়াই হল কাঁচা হলুদঃ 

অ্যালজাইমার সারা পৃথিবীতেই এখন মারাত্মক রোগের আকার ধারণ করেছে। হলুদে থাকা কারকিউমিন অ্যালজাইমারের চিকিৎসায় সাহায্য করে। হলুদের  অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি, অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট গুণ, স্মৃতিকে রক্ষা করার ক্ষমতা অ্যালজাইমারের চিকিৎসায় কাজে লাগে। দেখা গেছে নিয়ম করে কাঁচা হলুদ খেলে তা এই রোগের সম্ভাবনাকে অনেকটাই কমায়।

১০) হাঁপানি নিরাময়েও ব্যবহার হয় কাঁচা হলুদঃ 

হলুদে আছে কারকিউমিন নামক একটি উপাদান।যা শ্বাসনালীর বাধাকে দূর করে ও শ্বাস নেবার ক্ষমতা বাড়ায়। ফলে হাঁপানির রোগ থাকলে নিয়ম করে কাঁচা হলুদ খেলে উপকার পাওয়া যায়।

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

পুজো হবে, নাকি হবে না ! দোটানায় কলকাতার আবাসনের দুর্গা পুজো !

 হবে, নাকি হবে না? কলকাতার আবাসনে এটাই পুজোর ভাবনা। আবাসনের অনেক আবাসিক দোটানায়! কেউ কেউ …