রিনি
Home টলিউড - বলিউড - হলিউড রিনি জানে সে সুস্মিতা সেনের দত্তক সন্তান! প্রথম জানার পর তার প্রতিক্রিয়া কী ছিল?

রিনি জানে সে সুস্মিতা সেনের দত্তক সন্তান! প্রথম জানার পর তার প্রতিক্রিয়া কী ছিল?

২৫ বছর বয়সে তার প্রথম কন্যা সন্তান রিনিকে দত্তক নিয়েছিলেন তিনি। তার এই পদক্ষেপে হকচকিয়ে গেছিল সমাজ।

২৫ বছর বয়সে তার প্রথম কন্যা সন্তান রিনিকে দত্তক নিয়েছিলেন তিনি। তার এই পদক্ষেপে হকচকিয়ে গেছিল সমাজ।২০০০ সালে তার প্রথম কন্যা সন্তান রিনিকে দত্তক নিয়েছিলেন তিনি এবং হয়েছিলেন সিঙ্গেল মাদার। তার এরকম একটি সাহসী পদক্ষেপের সমালোচনা হয়েছিল প্রচুর সেই সময়ে।

Web content writing training Online

ফের একবার ২০১০ সালে তার কনিষ্ঠ সন্তান আলিশাকে দত্তক নেন তিনি।  এই দুই কন্যাকে তিনি একা হাতে নিজের মনের মতন করে বড় করে তুলছেন। বরাবরই সুস্মিতা বিশেষ সমাজের তোয়াক্কা করেননি। নিজের মনের মত করে নিজের জীবনকে চালান তিনি।

তবে রিনি বড় হয়ে ওঠার পর সে যে সুস্মিতার দত্তক নেওয়া সন্তান তা জানিয়ে দিয়েছিলেন মেয়েকে। পরবর্তীকালে মেয়ের উপর যাতে মানসিক চাপ না পড়ে এই কথা ভেবেই তিনি নিজেই জানিয়ে দিয়েছিলেন রিনিকে এই কথা। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সুস্মিতা সেন তার সেই অভিজ্ঞতার কথাই তুলে ধরেছিলেন। এবং এই কথা শুনে রিনির কি প্রতিক্রিয়া হয়েছিল সেটিও তিনি জানিয়েছেন ওই সাক্ষাৎকারে।

রিনি

পরবর্তীতে পড়ুনঃইনস্টাগ্রাম অ্যাপে এখন যে কেউ দিতে পারবে বিজ্ঞাপণ!

তিনি বলেছেন, যখন তিনি রিনি্কে এসব কথা বলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তখন তিনি ভয় পেয়েছিলেন যে এই সব কথা শোনার পর মেয়ের মনের ওপর চাপ পড়তে পারে। তাই তিনি খেলার মাধ্যমে বিষয়টি খোলাসা করে বলেছিলেন তার মেয়েদের। সেই খেলা কি রকম ছিল জানতে চাইলে তিনি বলেন,” আমরা বিপরীত ধর্মী একটা খেলা খেলছিলাম। মানে লম্বা বেটে এইসব। তারপরে সেই খেলার ছলেই আমি এনেছিলাম ঔরসজাত সন্তান ও দত্তক সন্তানের প্রসঙ্গ। রিনি তখন প্রশ্ন করেছিল, ও কি তাহলে দত্তক সন্তান? তখন আমি বলেছিলাম হ্যাঁ, ঔরসজাত সন্তান বিষয়টা বোরিং। তুমি বিশেষ, তুমি আমার হৃদয় থেকে জন্মেছ।’ এরপরে তিনি হেসে বলেন,” এটি জানার পর থেকেই ও বাকিদের বলতো,’ তুমি ঔরসজাত সন্তান? তুমি তাহলে বোরিং।’ দুইজনের ক্ষেত্রেই এটা ম্যাজিকের মতো কাজ করেছিল।” তিনি আরো জানান যে তিনি ভীষন শান্তি পেয়েছিলেন এটা জেনে যে তার এই পন্থা ম্যাজিকের মত কাজ করেছিল।

সুস্মিতার মতন তার মেয়েরাও হয়েছে মুক্ত মনের মানুষ। তারাও ব্যাপারটা খুব সহজ ভাবেই মেনে নিয়েছিল। তারা ভালভাবেই জানে তারা দত্তক সন্তান হলেও সুস্মিতা তাদের নিজের মায়ের থেকে কোন অংশেই কম নন। সুস্মিতার ইনস্টাগ্রাম পোস্ট দেখেই আন্দাজ করা যায় তিনি কতটা ভালবাসেন তার মেয়েদের। সুস্মিতা সাক্ষাৎকারে বলেছেন রিনির যখন ষোল বছর বয়স ছিল তখন তিনি তাকে দত্তক নেওয়ার প্রসঙ্গে জানিয়েছিলেন। তিনি তাকে এও বলেছিলেন আঠারো বছর বয়স হয়ে যাওয়ার পর ঋণী চাইলে তার জন্মদাত্রী মা বাবাকে খুঁজেও নিতে পারে। আদালতে আবেদন জানিয়ে নিজের বাবা মার নাম জেনে নিতে পারে সে। সুস্মিতা জানিয়েছিলেন তিনি নিজে জানেন না রিনির আসল বাবা মায়ের পরিচয়। তাই তিনি রিনিকে কোন ভুল তথ্যও দিতে চান না। তবে রিনি জানিয়েছেন তার কোন প্রয়োজন নেই কাউকে খুঁজে বের করার। তার জন্য সুস্মিতা সেনই তার আসল মা।

বর্তমানে তার দুই মেয়েকে নিয়ে বেশ সুখেই আছেন প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী সুস্মিতা সেন। এমনকি সুস্মিতার বর্তমান সঙ্গী রহমন শল এর সঙ্গে রিনি ও আলিশার সম্পর্ক বেশ ভালো। বিভিন্ন পারিবারিক অনুষ্ঠানে কিংবা নিজেদের মধ্যে সময় কাঁটাতে একসঙ্গে তাদের দেখা যায়। একসাথে তাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি পোস্ট করতেও দেখা যায়।

আরও পড়ুনঃপ্লাস্টিক সার্জারি করে রাখি সাওয়ান্তের মত দেখতে হয়ে গেলেন অভিনেত্রী মৌনি রায়!

100% Free Domain Hosting - Dreamhost banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, তাই ‘গুজব’ রটাবেন না !

চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ৷ মঙ্গলবার বিকেলে হাসপাতাল থেকে আসা মেডিক্য…